রাস্তা নির্মাণের তিন বছর পরও ড্রেন নির্মানের কাজ অসমাপ্ত

নিজস্ব সংবাদদাতা: মোহনপুর মহাকুমার মোহনপুর থেকে বরকাঠাল যাওয়ার পথে তৈরাজবাড়ী চৌমুনী এলাকা থেকে রাস্তার পাশে ড্রেন নির্মাণ করা হয়েছে। কিন্তু এলাকার শুক্রমনি দেববর্মার বাড়ি পর্যন্ত এসে  নির্মাণ কাজ বন্ধ হয়ে গেছে। শুরু থেকেই শুক্রমনি দেববর্মা ঠিকাদারকে বলেছিলেন ড্রেইনটি অন্তত নিচের জমি পর্যন্ত নিয়ে যাওয়ার জন্য।

যাতে করে উঁচু এলাকার জলগুলো নিচু জমি পর্যন্ত গড়িয়ে যেতে পারে। কিন্তু তখন দাবি পূরণের আশ্বাস দিলেও তা করেনি ঠিকেদার। এর পরবর্তী সময়ে দেখা গেছে শুক্রমনি দেববর্মার বাড়ি পর্যন্ত ট্রেনের সমস্ত জল এসে আটকে থাকছে। ফলে জল বের হতে না পারায় রাস্তার উপর দিয়ে বয়ে যাচ্ছে জল।

এর ফলে কিছুদিনের মধ্যেই রাস্তার এই অংশটি ভেঙে যায়। পুনরায় প্রায় তিন মাস আগে রাস্তাটি মেরামত করা হয়েছে বলে জানান শুক্রমনি দেববর্মা। ওই সময়ে ঠিকাদারকে শুক্রমনি দেববর্মা  বলেন ড্রেনটি নিচু জমি পর্যন্ত করে  দেওয়ার জন্য। তখনো সে কিভাবে দাবি পূরণের আশ্বাস দিয়েছিল ঠিকেদার। কিন্তু বাস্তবে কোন ট্রেন নির্মাণ করা হয়নি। যার ফলে বর্তমানেও বাড়ি ঘরের নোংরা জল ট্রেনের উপর দিয়ে রাস্তায় আসছে।

শুক্রমনি দেববর্মা সহ গ্রামবাসীরা জানান এলাকায় রাস্তার পাশে যে ট্রেনটা রয়েছে সেটি নিচু ভূমি পর্যন্ত নির্মাণ করা না হলে জল নামার যে সমস্যা সেটি সমাধান হবে না।  আর তার ফলেই লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করে নির্মাণ করা পিচের রাস্তায়ও ভাঙ্গন শুরু হবে।এলাকাবাসীর দাবি এই এলাকায় রাস্তার পাশে ড্রনটি অতিসত্বর নিচু জমি পর্যন্ত নির্মাণ করার উদ্যোগ নিক দপ্তর। এই অবস্থায় কি পদক্ষেপ নেয় দপ্তর এটাই দেখার।