লক্ষ্মীপুরে বিধবাকে হাত-পা বেঁধে গণধর্ষন, আটক ২

লক্ষ্মীপুর সংবাদদাতা: লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে ঘরে ঢুকে এক বিধবা নারীকে দলবেঁধে গণধর্ষনের পর হাত-পা বেঁধে বাড়ির পেছনে ফেলে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। পূর্ব বিরোধকে কেন্দ্র করে স্থানীয় বখাটে জামাল হোসেনসহ ৫ জন মিলে ওই নারীকে গণধর্ষণ করে বলে অভিযোগ করেছেন ভূক্তভোগী পরিবার।
এ ঘটনায় সোমবার (৫ অক্টোবর) বিকালে ভিকটিম নারী বাদী হয়ে রামগতি থানায় জামাল হোসেনকে প্রধান আসামী করে ৫ জনের নামে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেন। পরে জামাল ও সোহেল নামে দুজনকে আটক করেছে পুলিশ। এরআগে এর আগে রবিবার (৪ অক্টোবর) গভীর রাতে উপজেলার চরপোড়া গাছা ইউনিয়েনের কলাকোপা এলাকায় গনধর্ষণের শিকার হন ওই বিধবা নারী। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করেন নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন।
পুলিশ জানান, চরপোড়া গাছা ইউনিয়েনের কলাকোপা এলাকায় নিজ ঘরে একাই থাকেন বিধবা নারী। গভীর রাতে একা পেয়ে জামাল উদ্দিনসহ স্থানীয় ৫জন বখাটে ঘরে প্রবেশ করে। এসময় তারা ওই বিধবা নারীকে জোরপূর্বক সঙ্গবন্ধ ভাবে ধর্ষণ করে হাত-পা, মুখ ও চোখ বেঁধে বাড়ির পেছনে ফেলে চলে যায়। পরে স্থানীয়রা তাকে রক্তাক্ত বাঁধা অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ভিকটিমকে উদ্ধার করে নোয়াখালী হাসপাতালে ভর্তি করেন।
রামগতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সোলেমান জানান, বিধবা নারীকে গনধর্ষণের অভিযোগ ভিকটিম নিজেই থানায় ৫ জনকে আসামী করে মামলা করেন। দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি অভিযুক্তদের ধরার চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।